আইন ও অপরাধ

পাইকগাছায় স্কুল ছাত্র অভিকে মারপিট করে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ পরিবারের : পুলিশী তদন্ত অব্যাহত

স্নেহেন্দু বিকাশ, পাইকগাছা ॥ খুলনার পাইকগাছার বাইনবাড়ীয়াতে এইচএসসি পরীক্ষার্থী অভিকে হাত-পা বেধে মারপিট করে আহত করার অভিযোগে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে কয়েকটি সুত্র ধরে তদন্ত অব্যাহত রেখেছেন বলে জানিয়েছেন। এদিকে হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা সেবা নিয়ে অভি মামার বাড়ীতে ফিরেছে। সে পাইকগাছা পৌর সদর বাতিখালীর অজিত মন্ডলের ছেলে। স্থানীয়রা তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের শাস্তি দাবী করেছেন। অভির পারিবারিক ও স্থানীয় সুত্র জানায়, গত ৩ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় বাইনবাড়ীয়ার কাঠালতলা সংলগ্ন জয়ন্ত মন্ডলের ভাগ্নে বাইনবাড়ীয়া হাই স্কুলের এইচএসসি পরীক্ষার্থী অভি মন্ডল মামাবাড়ী থেকে প্রতিদিনের মতো সন্ধ্যায় প্রাইভেট পড়তে রওনা দেন। ঘটনার বর্ননা দিয়ে অভি বলেন, এদিন বন্ধুরা সাথে ছিল না, স্থানীয় প্রাইমারী স্কুলে একা-একা প্রাইভেট পড়তে রওনা দিই। দেখি কাঁঠালতলা মন্দির সংলগ্ন রাস্তার ধারে গাব গাছের নিছে দুজন লোক দাড়িয়ে রয়েছে। এক জন এগিয়ে এসে আমাকে ডাক দিয়ে বলে অভি যে, ঘাড়ে জোরে চাপ দিয়ে পুকুর পাড়ে ফিল্টারের ধারে নিয়ে যায়। আমি ভয়ে ঘাবড়ে গিয়ে চিৎকার দেবার চেষ্টা করি, এ সময় ওরা আমার মুখে রোমাল ধরে হাত-পা বেঁধে মারপিট চালালে অজ্ঞান হয়ে পড়ি। স্থানীয়রা জানান, ঘটনার পর পরই হীরক সহ অন্য শিক্ষার্থীরা প্রাইভেট পড়তে যাবার সময় গোংরানি শুনে খবর দিলে স্থানীয়া অজ্ঞান অবস্থায় অভিকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এনে ভর্তি করে। মুহুর্তেই এ খবরে ঘটনাস্থলে বহু মানুষ জড়ো হয়ে এ ঘটনার প্রতিবাদ জানান। এরপর বাইনবাড়ীয়া ক্যাম্প পুলিশের ইনচার্জ শেখ আবু হানিফ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এ ঘটনায় অভির মামা জয়ন্ত মন্ডল বাদী হয়ে ৭/৮ অজ্ঞাত নামা ব্যক্তির বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেছেন। জয়ন্ত-সঞ্জয় মন্ডল সহ স্থানীয় সুত্র গুলো জানান, কাঁঠালতলা-বাঁশতলা জলমহল (খাল) ক্রয় সংক্রান্ত বিরোধে পুর্ব শত্রুতার জেরে বা অন্য কোন কারনে এমন ঘটনা ঘটলো কিনা তা তদন্ত করে রহস্য উদঘাটন করে দোষিদের আইনের আওতায় আনার দাবী করেছেন। ওসি এমদাদুল হক শেখ জানান, এ অভিযোগের বিষয়টি বাইনবাড়ীয়া ক্যাম্প পুলিশের ইনচার্জকে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

Please follow and like us: